লঞ্চের দেরি : বিসিএস দেওয়া হলো না দুই শতাধিক পরীক্ষার্থীর - আজকের শিক্ষা || ajkershiksha.com

লঞ্চের দেরি : বিসিএস দেওয়া হলো না দুই শতাধিক পরীক্ষার্থীর

SS iT Computer

লঞ্চের দেরি : বিসিএস দেওয়া হলো না দুই শতাধিক পরীক্ষার্থীর ঢাকায় ৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার উদ্দেশ্যে ভোলা থেকে দুই শতাধিক পরীক্ষার্থী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এমভি তাসরিফ-২ নামের লঞ্চে ওঠেন। ঢাকা-হাতিয়া নৌ রুটে চলাচলকারী ওই লঞ্চটির গতকাল শুক্রবার খুব ভোরে ঢাকা সদরঘাটে পৌঁছার কথা থাকলেও এটি কয়েক ঘণ্টা দেরিতে পৌঁছে। ফলে ওই পরীক্ষার্থীরা গতকাল নির্ধারিত সময়ে পরীক্ষার হলে পৌঁছাতে পারেননি। পরীক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন, ওই লঞ্চ কর্তৃপক্ষের হটকারী সিদ্ধান্তের কারণেই তাঁরা সময়মতো ঢাকায় পৌঁছে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেননি। গতকাল সকাল ১০টায় ৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

ভোলা সদর উপজেলার বিসিএস পরীক্ষার্থী মো. হাবিব, মো. নাইম, আরিফ, শাহনাজসহ ১০-১২ জন পরীক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশ নিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাঁরা ইলিশা লঞ্চঘাট থেকে হাতিয়া হয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা এমভি তাসরিফ-২ লঞ্চে ওঠেন। লঞ্চটি বরিশালের উলানিয়া থেকে যাত্রী নিয়ে কিছুদূর এগিয়ে রাত ১০টার দিকে ফের ভোলার দিকে ফিরে যায়। তাঁরা লঞ্চ কর্তৃপক্ষকে পেছনের দিকে যাওয়ার কারণ জিজ্ঞেস করলে তারা জানায় লালমোহনের হাকিমুদ্দিন ঘাটে চরফ্যাশন থেকে ছেড়ে আসা তাদের তাসরিফ-৪ লঞ্চটি বিকল হয়ে গেছে। ওই লঞ্চের যাত্রীদের আনতে তারা সেখানে যাচ্ছে।

তারা ওই পরীক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে যে, হাকিমুদ্দিন ঘাট থেকে রওনা করে লঞ্চটি সকাল ৬টার মধ্যেই ঢাকার সদরঘাটে পৌঁছবে। কিন্তু লঞ্চটি সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে ঢাকায় পৌঁছে। এ অবস্থায় কিছু পরীক্ষার্থী দ্রুত লঞ্চ থেকে নেমে তাঁদের নির্ধারিত পরীক্ষাকেন্দ্রের সামনে গেলেও দেরিতে পৌঁছানোর কারণে তাঁদের অনেককে কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

তাঁরা আরো জানান, লঞ্চ দেরি করে ঘাটে পৌঁছানোয় বহু পরীক্ষার্থী জেদ করে লঞ্চ থেকেও আর নামেননি। ওই পরীক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, লঞ্চ কর্তৃপক্ষকে বারবার বিএসসি পরীক্ষার কথা জানালেও তারা এতে কর্ণপাত করেনি। লঞ্চ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

এ ব্যাপারে ফেয়ারি শিপিং লাইন্স লিমিটেডের (তাসরিফ লঞ্চ) ম্যানেজার মো. ইকবাল জানান, তাঁদের পরিচালনাধীন তাসরিফ-৪ লঞ্চটি বিকল হয়ে যাওয়ায় সেই লঞ্চে থাকা মুমূর্ষু রোগী ও যাত্রীদের আনতে তাসরিফ-২ লঞ্চটিকে মাঝপথ থেকে রিটার্ন পাঠানো হয়। সেখান থেকে যাত্রী নিয়ে সকাল

৯টার মধ্যে লঞ্চটি ঘাটে পৌঁছে। তবে বিসিএসের মতো এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের এক দিন আগেই ঢাকা আসা উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘লঞ্চের যান্ত্রিক ত্রুটি হতেই পারে, তাঁদের এ রকম ঝুঁকি নেওয়া উচিত হয়নি। তবে এ কারণে বিসিএসে অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে আমরা কোনো ভাড়া নিইনি।’

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

বাছাইকৃত সংবাদঃ

Comments are closed.