ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিতে হবে: শান্ত - আজকের শিক্ষা || ajkershiksha.com

ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিতে হবে: শান্ত

SS iT Computer

ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিতে হবে: শান্ত বিপর্যস্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশন শেষে সমালোচনার তোপে পড়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। ব্যর্থতার ভারে ন্যুজ দলটাও সমালোচনার ঝড়ে বদলে গেছে বেশ। ইনজুরি ও পড়তি ফর্মের কারণে বাদ পড়া মিলে দলে ৬ পরিবর্তন। চারটি নতুন মুখ। তবে দল নির্বাচনে নির্বাচক, টিম ম্যানেজমেন্টকেও বেশ দ্বিধান্বিত।

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্ট পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য ঘোষিত বাংলাদেশ দলটাতে সেই ছাপই স্পষ্ট। নাজমুল হোসেন শান্ত, সাইফ হাসান, ইয়াসির আলী রাব্বিরা ডাক পেয়েছেন। অথচ অনেক হাঁক-ডাকের পরও আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের জন্য খ্যাত তরুণ পারভেজ হোসেন ইমনকে রাখা হয়নি দলে।

তবে হোম সিরিজে বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষা করছে বড় চ্যালেঞ্জ। ব্যর্থতার বৃত্ত ভেঙে জয়ের ছন্দে ফেরার চাপটা কাটানো কঠিন হবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের জন্য।
বিশ্বকাপে ভরাডুবির মূলে ছিল ব্যাটিং ব্যর্থতা। ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে ব্যাটসম্যানদের বড় দায়িত্ব দেখছেন শান্ত। বছরের শুরুতে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি থেকে ছিটকে পড়েছিলেন এ বাঁহাতি ওপেনার। চরম চাপে থাকা টিম ম্যানেজমেন্ট আবারও ফিরিয়েছে শান্তকে। গতকাল অনুশীলন শেষে তিনি বলেছেন, দলের সবাইকেই দায়িত্ব নিতে হবে। তার বিশ্বাস, সেই সামর্থ্য রয়েছে সবার।

ক্যারিয়ারে তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলে ২৪ রান করে বাদ পড়েছিলেন শান্ত। গতকাল তিনিই স্মরণ করিয়ে দিলেন ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নেয়ার কথা। ২৩ বছর বয়সী এ টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘আমরা এখানে যারা আছি প্রত্যেকেই সামর্থ্যবান। প্রত্যেকটা ব্যাটসম্যানই দায়িত্ব নিয়ে খেলার মতো। আমাদেরই দায়িত্ব নিতে হবে। এখানে সিনিয়র বা জুনিয়র বলে কিছু নাই। প্রত্যেকেরই দায়িত্ব আছে।’

অবশ্য টি-টোয়েন্টিতে ৭৮ ম্যাচ খেলে দুটি সেঞ্চুরি রয়েছে শান্ত’র, সঙ্গে ৬টি হাফ সেঞ্চুরি। এখন ওপেনিং তথা টপঅর্ডারে তার মাঝেই সমাধান দেখছে টিম ম্যানেজমেন্ট। যেখানে লিটন দাস, সৌম্য সরকার চরমভাবে হতাশ করেছেন।

বিশ্বকাপে ক্যাচ ফেলা যেন নিয়মে পরিণত করেছিল বাংলাদেশ দল। ভালো ফিল্ডার হিসেবে খ্যাতি আছে শান্ত’র। তার মতে, ফিল্ডিংটা উপভোগ করাই সাফল্যের পূর্ব শর্ত। গতকাল তিনি বলেছেন, ‘ফিল্ডিংয়ের ব্যাপার নিবেদনের একটা বিষয়। আমরা যারা এখানে ফিল্ডার আছি, খুব ভাল একটা ফিল্ডিং দল। আশা করছি ভাল হবে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে ১৩ ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের জয় মাত্র ২টি। পাকিস্তান ১০টি ম্যাচ জিতেছে, একটি পরিত্যক্ত। বিপিএলে পাকিস্তানের বোলারদের খেলার সুযোগ হয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। শান্ত সেই অভিজ্ঞতা থেকেই আত্মবিশ্বাস পাচ্ছেন। তিনি বলেছেন, ‘বিশ্ব ক্রিকেট চিন্তা করলে পাকিস্তান সেরা দলগুলোর একটি। বিপিএলে ওদের বেশ কয়েকজনের সঙ্গে খেলার সুযোগ হয়েছে। ওই দিক থেকে আমরা একটু আত্মবিশ্বাসী যে ওই বোলারদের মোকাবেলা করেছি, বা ওই ব্যাটসম্যানের বিপক্ষে বল করেছি। অতো বেশি চিন্তার কিছু নেই আমরা যেটা পারি ওই জিনিসটা করব।’

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

বাছাইকৃত সংবাদঃ

Comments are closed.